রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মহাজোটে যেতে চান ভাবি, দেবরের ‌‘না’

নিজস্ব প্রতিবেদক
২০ নভেম্বর ২০২৩ ১০:২২ |আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২৩ ১৩:২০
জি এম কাদের ও রওশন এরশাদ
জি এম কাদের ও রওশন এরশাদ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার পর নতুন করে কোন্দল শুরু হয়েছে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে থাকা দেবর-ভাবি রওশন এরশাদ ও জিএম কাদেরের মধ্যে। দলের পৃষ্ঠপোষক হিসেবে থাকা রওশন চান আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোটের হয়ে নির্বাচনে যেতে।

অপরদিকে, নির্বাচনে যাওয়ার বিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত না নিলেও এককভাবে ৩০০ আসনে ভোট করার প্রস্তুতি নিয়ে রাখছেন চেয়ারম্যান জি এম কাদেরপন্থিরা।

সোমবার (২০ নভেম্বর) জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, এবার আমরা মহাজোটের অংশ হয়ে নয়, এককভাবেই ৩০০ আসনে নির্বাচন করতে চাই।

মহাসচিব বলেন, প্রাথমিক কাজ শুরু করেছি। প্রক্রিয়া শুরু করলেও নির্বাচনে যাওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয় এটি। নির্বাচনী আস্থা এখনও আসেনি। খুব শিগগিরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মহাজোটে নয়, এবার এককভাবে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেবে জাতীয় পার্টি।সংলাপ বিষয়ে জাপা মহাসচিব বলেন, সরকারি দল ও বিএনপি কেউ আগ্রহী নয় সংলাপে; তবে এখনও সময় আছে আলোচনায় বসার।দলে কোনো বিভেদ নেই দাবি করে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি জিএম কাদেরের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ দল।

রোববার (১৯ নভেম্বর) রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে বঙ্গভবনে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির একটি প্রতিনিধি দল সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

এরপর জি এম কাদেরপন্থিরা বলেন, রওশন এরশাদ দলের পৃষ্ঠপোষক। দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার তার নেই।

জাপা মহাসচিব চুন্নু বলেন, দলের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার এখতিয়ার নেই রওশন এরশাদের। তিনি কার সঙ্গে কী আলাপ আলোচনা করেছেন, সেটা ধরার মধ্যে না। এটাকে আমরা আমলে নিচ্ছি না।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে রওশন এরশাদের দেখা করার বিষয়ে জাতীয় পার্টির কোনো সম্পর্ক নেই বলেও জানান তিনি।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের পর মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশ নেবে। সেই সঙ্গে সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ আয়োজনে রাষ্ট্রপতিকে অনুরোধ জানান তিনি।

এরই মধ্যে রওশনপন্থিরা আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের হয়ে নির্বাচনে যাওয়ার কথা জানিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চিঠিও দিয়েছে।

এদিকে আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পার্টির মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু হয়েছে। যার মূল্য ধরা হয়েছে ৩০ হাজার টাকা।

তপশিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন ফরম দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়নের আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর, নির্বাচনী প্রচার ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত এবং ভোটগ্রহণ ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।



মন্তব্য করুন