রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘বলিউড কুইন’ বলা হয় যে অভিনেত্রীদের

অনলাইন ডেস্ক
৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৭:২৭ |আপডেট : ৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৫:২৭
ছবি : সংগৃহীত
ছবি : সংগৃহীত

নাচ, অভিনয় কিংবা সৌন্দর্য দিয়েই হোক না কেন- ক্যারিয়ারের কোনো একসময় দর্শকদের মন্ত্রমুগ্ধ করতে সক্ষম হয়েছেন কুইন খেতাব পাওয়া বলিউড অভিনেত্রীরা। মধুবালার লোভনীয় চেহারা থেকে, মাধুরী দীক্ষিত এবং ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের চোখ ও সৌন্দর্য অনেকর হৃদয়ে ঝড় তোলে। মেধা আর পেশাদারিত্বের পাশাপাশি সুন্দর মুখের এসব নায়িকারা বলিউডে বছরের পর বছর কাজ করে রূপালি পর্দাকে করে তুলেছেন আকর্ষণীয়।

ভারতীয় একটি ওয়েবসাইট বলিউড কুইন ট্যাগ পাওয়া তারকাদের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। যাদের খ্যাতি রয়েছে হলিউডসহ অন্যান্য ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে। এ জরিপে উঠে আসা সর্বকালের সেরা কুইনদের নিয়ে সাজানো হয়েছে আজকের প্রতিবেদন।

ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন

সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী যেন সৌন্দর্যের সমার্থক। বয়স ৫০ ছুঁইছুঁই হলেও তার সৌন্দর্যের কোনো ভাটা পড়েনি। রূপের বর্ণনা যতোই দেওয়া হোক না কেন, মনে হবে কম কম। কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচা তার জন্যই এতো মোহনীয় হয়ে ওঠে প্রতি বছর।

তিনি ১ নভেম্বর ১৯৯৩ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। মিস ওয়ার্ল্ড ১৯৯৪ প্রতিযোগিতার বিজয়ীও এ লাস্যময়ী।

১৯৯৭ সালে তামিল চলচ্চিত্র ইরুভার দিয়ে যাত্রা শুরু করেন ঐশ্বরিয়া। এরপর অভিনয় ও মডেলিংয়ের মাধ্যমে রাই ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় এবং প্রভাবশালী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।


মাধুরী দীক্ষিত

এই তালিকায় রয়েছে বলিউডের ধাক-ধাক গার্ল মাধুরী দীক্ষিত। যিনি শুধু তার সৌন্দর্যই নয়, তার সুন্দর হাসি এবং চমৎকার নাচ ও অভিনয় দিয়ে কোটি কোটি ভক্তদের হৃদয়ে নিজের জন্য একটি বিশেষ পরিচিতি তৈরি করেছিলেন এবং একসময়, মাধুরী দীক্ষিত এতটাই জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন যে তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য অভিনেতাদের চেয়ে বেশি পারিশ্রমিক নিতেন।

ভারতের মুম্বাইতে ১৫ মে, ১৯৬৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার বাবা ছিলেন একজন স্কুল শিক্ষক এবং তার মা ছিলেন একজন গৃহিনী। তার দুই বোন ও এক ভাই আছে। তিনি মুম্বাইয়ের ভিলে পার্লেতে সাথয়ে কলেজে পড়াশোনা করেছেন।

১৯৮৪ সালে হিন্দি ছবি অবোধের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন। দেবদাস চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য বেশ কয়েকটি পুরস্কার জিতেছিলেন।


জুহি চাওলা

জুহি চাওলা একজন ভারতীয় অভিনেত্রী, মডেল, চলচ্চিত্র প্রযোজক এবং টেলিভিশন উপস্থাপক। তিনি ভারতের হরিয়ানার আম্বালায় ১৯৬৭ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা একজন সেনা ডাক্তার এবং তার মা ছিলেন গৃহিণী। তার দুই বোন ও এক ভাই আছে।

জুহি একজন মডেল হিসেবে তার ক্যারিয়ার শুরু করেন এবং বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে অভিনয় করেন। তিনি সুলতানাত (১৯৮৬) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু কেয়ামত সে কেয়ামত তাক (১৯৮৮) চলচ্চিত্রটি তাকে লাইমলাইটে নিয়ে আসে এবং ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করে।

তার অন্যান্য জনপ্রিয় চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে রয়েছে দার (১৯৯৩), ডুপ্লিকেট (১৯৯৮), সরফারোশ (১৯৯৯), ফির ভি দিল হ্যায় হিন্দুস্তানি (২০০০) ইত্যাদি।


দীপিকা পাডুকোন

দীপিকা পাডুকোন বলিউডের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী। বর্তমানে বলিউডের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রীদের একজন তিনি। দীপিকার জন্ম ৫ জানুয়ারি ১৯৮৬ সালে। এছাড়া তিনি হলেন ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় প্রকাশ পাড়ুকোনের মেয়ে।

দীপিকার প্রথম ছবি ছিল ওম শান্তি ওম, যেখানে তিনি শাহরুখ খানের বিপরীতে দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। তিনি তিনটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেছেন। ২০১৮ সালে বলিউড অভিনেতা রণবীর সিংকে তিনি বিয়ে করেন।

চলচ্চিত্রের পাশাপাশি, তিনি তার নিজস্ব পোশাক ব্র্যান্ড চালু করেছেন এবং বেশ কয়েকটি দাতব্য সংস্থার সঙ্গে জড়িত।


রাশমিকা মান্দানা

রাশমিকা মান্দানা একজন ভারতীয় মডেল এবং চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, যিনি প্রধানত তেলুগু এবং কন্নড় চলচ্চিত্রে কাজ করেন। কলেজে থাকাকালীন তার মডেলিং ক্যারিয়ার শুরু করেন এবং বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে দেখা যায়। কন্নড় চলচ্চিত্র কিরিক পার্টি (২০১৬) দিয়ে রাশমিকার অভিনয়ের অভিষেক ঘটে, যার জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেছিলেন।

রাশমিকাকে দক্ষিণ ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার একটি বড় ফ্যান গ্রুপ রয়েছে এবং প্রায়শই তাকে মিডিয়া কুইন হিসেবে উল্লেখ করা হয়।


ক্যাটরিনা কাইফ

এই তালিকায় রয়েছেন বলিউডের আরেক সুন্দরী অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ। তিনি ১৬ জুলাই ১৯৮৩ সালে হংকংয়ে জন্মগ্রহণ করেন, মডেল হিসেবে ভারতীয় সিনেমা শিল্পে পা রাখেন।

ক্যাটরিনা কাইফ মালায়ালাম এবং তেলেগু চলচ্চিত্রের পাশাপাশি বলিউডে কাজ করেছেন নমস্তে লন্ডন, সিং ইজ কিং, এক থা টাইগার, জব তক হ্যায় জান, নিউ ইয়র্ক, জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা, ব্যাং ব্যাং, ফ্যান্টম, টাইগার জিন্দা হ্যায়, জিরো ইত্যাদি সুপারহিট চলচ্চিত্রে।


প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

সৌন্দর্য এবং প্রতিভার কারণে, আজ প্রিয়াঙ্কা চোপড়া শুধু বলিউড নয়, হলিউডেও একজন সুপরিচিত অভিনেত্রী। দেশি গার্ল প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জিতেছিলেন।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বিহারের জামশেদপুরে ১৮ জুলাই ১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ২০০২ সালে বক্স অফিসে অক্ষয় কুমারের বিপরীতে সুপারহিট ছবি আন্দাজ দিয়ে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ করেন। তিনি বলিউডের অন্যতম ধনী অভিনেত্রী হিসেবেও পরিচিত।

বরফি, ডন, অগ্নিপথ এবং মেরি কমের মতো ছবিতে অভিনয় করে দর্শকদের তাক লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি।

একজন অভিনেত্রী এবং জনহিতৈষী হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি প্রিয়াঙ্কা ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূতও।


কারিনা কাপুর

বলিউডের অন্যতম সুন্দরী কারিনা কাপুর। কারিনা কাপুরের জন্ম ২১ সেপ্টেম্বর ১৯৮০ সালে। তার বাবার নাম রণধীর কাপুর এবং মায়ের নাম ববিতা। জামনাবাই নার্সি স্কুল, মুম্বাই এবং ওয়েলহাম গার্লস স্কুল, দেরাদুন থেকে তিনি স্কুল সম্পন্ন করেন।

এরপর তিনি মুম্বাইয়ের ভিলেপার্লে মিথিবাই কলেজ থেকে দুই বছরের কমার্স ডিগ্রি করেন। কারিনা কাপুর বিখ্যাত অভিনেতা সাইফ আলী খানকে বিয়ে করেছেন। যিনি তার থেকে ১০ বছরের সিনিয়র। সাইফ ও কারিনার তৈমুর নামে একটি ছেলে রয়েছে।




মন্তব্য করুন