শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪ | ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হোটেলের খাবারে থুতু দিয়ে প্র্যাঙ্ক ভিডিও, গ্রেপ্তার ৩

অনলাইন ডেস্ক
১০ মার্চ ২০২৩ ১৫:৩১ |আপডেট : ১১ মার্চ ২০২৩ ১১:০৬
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

জাপানিরা যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিয়ে কত সচেতন তা সবাই জানেন। রন্ধন সম্পর্কীয় শিষ্টাচারের জন্যও খ্যাতি রয়েছে তাদের। এমন একটি দেশে কনভেয়ার বেল্টে সাজানো প্লেটের খাবারে থুতু লাগিয়ে এবং সয়া সসের বোতল ও কাপ চেটে প্র্যাঙ্ক ভিডিও করেছেন কিছু ব্যক্তি। সেই কার্যক্রমে অংশ নেওয়ায় গ্রেপ্তার হয়েছেন তিনজন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, অস্বাস্থ্যকর এ তামাশার কারণে ধস নেমেছে রেস্তোরাঁ ব্যবসাতে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, শুধুমাত্র মজা করার জন্য এ ধরনের ঘটনা দেশটির লাখ লাখ মানুষকে হতবাক করেছে। গত ৩ ফেব্রুয়ারি কুরা সুশি রেস্টুরেন্টে ধারণ করা প্রথম প্র্যাঙ্ক ভিডিওটি ভাইরাল হয়। এরপর আরো বেশ কয়েকটি একই ধরনের ভিডিও প্রকাশ পায়। ফলে অভিযুক্তদের কর্মকাণ্ডকে বলা হচ্ছে সুশি সন্ত্রাস।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জাপানের মধ্যাঞ্চলের নগরী নাগোয়া থেকে রিওগা ইওশিনো (২১) নামে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার সঙ্গে ওই কাজে ১৯ ও ১৫ বছর বয়সের আরও দুজন জড়িত ছিল। গ্রেপ্তার হয়েছেন তারাও। যদিও অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

জানা গেছে, রেস্তোরাঁগুলোর পক্ষ থেকে প্রথমদিকে বেশ কয়েকবার তাদের খাবার নষ্ট না করার অনুরোধ জানানো হয়। কিন্তু এরপরেও বিষয়টি থেমে যায়নি। এটি এমন পর্যায়ে চলে যায়, কোনো কোনো রেস্তোরাঁ সুশি তৈরি বন্ধ রাখে। থমকে যায় কনভেয়ার বেল্ট। এমনকি সুশির বিভিন্ন চেইন রেস্তোরাঁর শেয়ারের দর পড়ে যায়।

বর্তমানে রেস্তোরাঁর কর্মীরা গ্রাহকদের খাবার পরিবেশন করছেন। টেবিলে আগ বাড়িয়ে রাখা হচ্ছে না কোনো মশলা বা সসের বোতল।

কুরা সুশি রেস্তোরাঁর একজন মুখপাত্র বলেন, ভিডিও ভাইরাল করার যে ট্রেন্ড চালু হয়েছে তা খুবই বিপদজনক। কনভেয়ার বেল্টে সাজানো সুশি জাপানের সংস্কৃতির অংশ। এটি নিয়ে আমরা গর্ববোধ করি। আমরা গ্রাহকদের নিশ্চয়তা দিতে চাই, তাদের জন্য বেল্টে যে সুশি দেওয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ নিরাপদ ও স্বস্তির সঙ্গে খাওয়া যাবে।



মন্তব্য করুন